বিশ্বয় বিশ্বর্য

অনুচর

দেশাত্ম বোধক গানটার
অসিবর্ণ ঠোঁট খোলা ,
হৃদয়ের ঝর্ণা ঝরে মসৃণ তানপুরায়
অভদ্র অনৈক্য বাঁধা সূতা
বাকি সব মীঢ় ভোঁতা
বিধ্বস্ত আত্ম সংলগ্ন রাস্তায়
যবনিকা খুঁজে পায় ব্যাথা …

মনের শয়নকালে ভেবে ভেবে
পরিকল্পনা নিছক মরে যায়
শেষ তো অবশ্যই আছে
দুর্দশা লাগা যার শুরুর বেলায়
বিবেকের ক্লান্তিতে ব্যঞ্জনা
সাথে সুর লয়ও মূর্ছা যায় ….

হায় কি পরিতাপ –
আগুন নিভাতে কোথায় দিবো পানি
শুধু জলের মাঝে ঢালছি আবার জল ?
যাপিত জীবন সীমাবদ্ধতায় অচল…
দেশ দেশ
বেশ বেশ
স্বাধীন আমি- সাথে আমার স্বাধীনতা
তবুও কি অপরিসীম দুরাচারী অধীনতা…

বিয়ের পর্ব আসে
শবের যাত্রা আসে
ঘৃণাপূর্ণ স্বরলিপিতে গাঁথা স্বরগ্রাম,
আসে খোকা খুকু সদ্যজাত
আমার স্বদেশ মিথ্যা আদেশে অন্তঃসত্ত্বা
ন্যায় নীতি করে গর্ভপাত ….

বুনো নকশা আঁকা ইতিহাসে ইতিকথা ,
বিষময়তায় বিষ দাঁতে
করে বিকট চিৎকার
কে কোথায় , কে বা কার
কে আপন কেই ই পর?
নিজ দেশে নিজেরাই অনুচর ….

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *